ক্যাটাগরিসমূহ
Uncategorized Writer Choice

সততার পুরস্কার


 

রাঙ্গুনীয়া থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে ১৯৯১ সালে ৭৫ এ জনক হত্যার পর প্রথম নৌকার বিজয় এনে দিয়েছিলেন মোহাম্মদ ইউসুফ।

নৌকার ছায়াতলে থেকে নির্বাচিত হয়ে অনেকেই চরম দুঃসময়ে জোট সরকারের হালুয়া রুটি খেতে আপনাকে ও আওয়ামীলীলীগকে ছেড়ে চলে গেলে ও নির্লোভ এই মানুষটি আপনার বিশ্বাসের অমর্যদা করেননি।করেননি নৌকার অমর্যদা।দূর্নীত, স্বজন প্রীতি,অহংকার যাকে স্পর্শ করতে পারেননি, তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার মরিয়ম নগরে নিন্ম মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম গ্রহন করা এই বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউসুফ।তিনি আজ দীর্ঘদিন ধরে চলাফেরায় অক্ষম ও বিভিন্ন জঠিল রোগে আক্রান্ত হয়ে ধুকে ধুকে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছে।
জন্মিলে মরিতে হইবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।ইউসুফ ভাই,আমি,আপনি সবাই মরবো।দুঃখটা অন্য জায়গায় নেত্রী,
সাবেক এই এম,পি কে যখন মানুষ দেখে,তখন সবাই আপসোস করে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারিত ভবন,জাতিয় সংসদে প্রতিনিধিত্ব করা এই মানুষটির যদি এই পরিনতি হয় তাইলে সাধারন নেতা কর্মীর অবস্হা কি হতে পারে?
এই কি সততার পুরস্কার?
সংসদ সদস্য বাদ দিলে ও একজন দেশ প্রেমিক মুক্তিযোদ্ধার এই করুণ পরিনতি কি আগামী রাজনীতিকে নিরুৎসাহীত করবে না?অর্থ ও চিকিৎসার অভাবে ক্রমাগত মৃত্যুর দিকে এগুচ্ছে এক সময়ের সাহসী এই মানুষটি।
মাননীয় প্রধান মন্ত্রী,আমাদের কে এই লজ্জা থেকে বাচাঁন।এই লজ্জা শুধু রাঙ্গুনিয়ার নয়,এই লজ্জা রাজনীতির।
আপনি বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিশ্ব মানবতার আইডল।বাচুক,বা মরুক সবই সৃষ্টিকর্তার কৃপা।তাকে অন্তত দেশের বাইরে নিয়ে গিয়ে রাষ্ট্রীয় ভাবে তার চিকিৎসার শেষ চেষ্টা করা হউক।তাইলে অন্তত রাজনীতির ইজ্জত বাচঁবে।আপনার সুস্হতা কামনা করছি।আপনি আমাদের জন্যে সুস্হ থাকুন সর্বক্ষণ,সর্বদা।আমার বিশ্বাস আপনার নজরে এলে আপনি অবশ্যই অবশ্যই কিছু একটা করবেন।ইতিমধ্যে টুকিটাকি সাহায্য সহযোগিতা অনেকেই করেছে,কিন্তু এইটা মুলত তার চিকিৎসার জন্যে অপ্রতুল।তারপর ও যারা করেছে তাদেরকে আমি কৃতজ্ঞতা জানাই।আপনিই শেষ ঠিকানা।আর তা যদি না হয়,আমি বলবো আল্লাহ যেন এম,পি ইউসুফকে দ্রুত পরপারে নিয়ে যায়।কারন,বেচেঁ থাকলে আমাদের লজ্জা,ইউসুফ ভাইয়ের নয়।তিনি আল্লাহ,র মেহমান হয়ে গেলে অন্তত কষ্ট থেকে বাচঁবেন।ক্ষমা করবেন ইউসুফ ভাই।

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.