ক্যাটাগরিসমূহ
শক্তি পীঠ

ত্রিপুরেশ্বরী শক্তিপীঠ (দ্বিতীয় পর্ব)


মা ত্রিপুরেশ্বরী হলেন ভগবান
ত্রিপুরেশের শক্তি। তিনি
শিবশক্তি, তিনিই অসুর দলনী
চণ্ডীকা । দেবীর পূজো এখানে
ষোড়োশী দেবীর পূজার নিয়মে
করা হয় । তন্ত্র আচারে দেবীর
পূজা হয় । খ্রিষ্টীয় পঞ্চদশ
শতকে মোঘোল রা ত্রিপুরা
রাজ্য আক্রমণ করেন। যবন
সৈন্যরা কামান, সেনা নিয়ে মন্দির
আক্রমণ করেন । লক্ষ্য একটাই
মন্দির লুটপাট, ধ্বংস । মোঘোল
গনের নীতি ছিল- হয় মোঘোল
দের আধিপত্য স্বীকার করে
বার্ষিক খাজনা দাও, নচেৎ যুদ্ধ
করো । আকবর একটু দয়ালু
চিন্তাধারার হলেও- বাকী
মোঘোল গন বিশেষত
ঔরঙ্গজেব- এই নীতি অনুসরণ
করেছেন । ত্রিপুরা ছোটো
রাজ্য। সেখানকার হিন্দু রাজার
শক্তি কম । তিনি কিভাবে লড়বেন
বিশাল মুঘল বাহিনীর সাথে । শ্রী
শ্রী চণ্ডীতে বলে –
রোগানশেষানপহংসি তুষ্টা
রুষ্টা তু কামান্ সকলানভীষ্টান্ ।।
ত্বামাশ্রিতানাং ন বিপন্নরাণাং
ত্বামাশ্রিতা হ্যাশ্রয়তাং
প্রয়ান্তি ।।
( অর্থাৎ- হে দেবী ! তুমি তুষ্ট
হলে সকল রকম রোগ নাশ করে
থাকো। আবার তুমি রুষ্ট হলে তাঁর
সকল প্রকার আশা, ইচ্ছা নষ্ট
হয় । যাহারা তোমাকে আশ্রয়
করে, তাহাদের বিপদ হয় না। কারন
তোমাকে আশ্রয় করিলে জগতের
আশ্রয় হওয়া যায় । )
ত্রিপুরার তৎকালীন রাজধানী
উদয়পুর মুঘল রা দখল করে
মন্দিরের দিকে আগাতে থাকলে
মুঘল সেনাদের মধ্যে ভয়ানক
মহামারী দেখা যায়। প্রচুর মুঘল
সেনা রোগে মারা যায় । মুঘল
হাকিম রাও ঔষধ দিতে পারেনি।
বাকী মুষ্টিমেয় জীবিত কিছু সেনা
পলায়ন করে। দেবীর মন্দির
লুঠপাঠ করবার বাসনা নিয়ে গিয়ে
তারা জীবন হারালো । দেবীর
মধ্যে পালিনী বৈষ্ণবী মূর্তি দেখা
যায় আবার তাঁর মধ্যে সংহারিনী
মহাকালী মূর্তিও দেখা যায় ।
ত্রিপুরার প্রাচীন যে রাজ্য সীমা
ছিল তাঁতে তিনটি শৈব পীঠের
উল্লেখ দেখা যায় । বাংলাদেশের
কুমিল্লার সতেরো রত্ন মন্দির,
রাজরাজেশ্বরী মন্দির, পার্বত্য
চট্টগ্রামের চন্দ্রনাথ মন্দির ।
বিভিন্ন পুরাতাত্ত্বিক নিদর্শন
দেখে অনুমান করা যায়- এই
অঞ্চলে একসময় পাল, দেব,
চন্দ্র বংশীয় রাজারা রাজত্ব
করতেন । প্রাচীন বাংলার
ইতিহাসে আমরা পাল বংশের
রাজত্বের কথা জানতে পারি ।
মন্দির টি ৭৫ ফুট উচু । দূর থেকে
মন্দিরের চূড়া দেখা যায় ।
মন্দিরের তিনদিকে ভোগ রান্নার
ঘর, পুরোহিত সেবাইত দের থাকার
ঘর আছে। মন্দিরের স্থাপত্যে
বৌদ্ধ প্রভাব সুস্পষ্ট ।
( চলবে )

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.